প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ৮ জেলার কার্যক্রম স্থগিত


নিজস্ব প্রতিবেদক: | Published: 2020-02-04 08:59:24 BdST | Updated: 2020-02-22 06:33:13 BdST

আরও আট জেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমের ওপর ছয় মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এর মধ্যে ফরিদপুর ও লক্ষ্মীপুর জেলায় পাঠানো নিয়োগপত্রের ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে।

গতকাল ওইসব জেলার কয়েক নিয়োগপ্রত্যাশীর করা পৃথক রিট আবেদনের ওপর শুনানি হয়। বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের বেঞ্চ শুনানি শেষে রুলসহ এ আদেশ দেন।

আট জেলা হলো- নাটোর, পাবনা, গাইবান্ধা, লক্ষ্মীপুর, পটুয়াখালী, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জ।

আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন মো. আসাদ উদ্দিন, জামিউল হক ফয়সাল ও আবদুস সাত্তার পালোয়ান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

পরে আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩-এর ৭ ধারা অনুযায়ী সরাসরি নিয়োগযোগ্য পদে ৬০ শতাংশ মহিলা, ২০ শতাংশ পোষ্য এবং বাকি ২০ শতাংশ সাধারণ প্রার্থীকে নিয়োগ দিতে হবে। কিন্তু ২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফলে সেটা অনুসরণ করা হয়নি। ওই ফলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করা হয়।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।