মুম্বাইতে পাচার হওয়া বাংলাদেশি ৭ তরুণীকে হস্তান্তর


নিজস্ব প্রতিবেদক: | Published: 2017-04-27 09:07:42 BdST | Updated: 2019-08-25 21:36:34 BdST

ভারতের মুম্বাইয়ে পাচার হওয়ার দুই বছর পর সাত বাংলাদেশি তরুণীকে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ। ২৬ এপ্রিল বুধবার সন্ধ্যায় ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিট প্রক্রিয়ায় বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে ভারতের পেট্রাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশ।

বাংলাদেশে ফেরত আসা সাত তরুণী হলেন- যশোরের ইছাহার উদ্দিনের মেয়ে রুমি পারভিন (২২), নড়াইলের আবু হাসানের মেয়ে জুলি খাতুন (২১), একই জেলার আবু তালেবের মেয়ে মরিয়ম খাতুন (২৩), ঢাকার সিরাজ সরদারের মেয়ে সুমি (২০), রংপুরের আহম্মেদ মন্ডলের মেয়ে হামিদা খাতুন (২৫), কক্সবাজারের ইমরান হোসেনের মেয়ে ছানোয়ার আক্তার (২০) ও একই জেলার সুলতান আহম্মদের মেয়ে আন্জুয়ারা খাতুন (২৩)।

ইমিগ্রেশন পুলিশ জানায়, দুই বছর আগে ভালো কাজের কথা বলে ওই তরুণীদের ভারতে পাচার করে দালালরা। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে মুম্বাই শহর থেকে তাদের আটক করে জেলে পাঠায় ভারতীয় পুলিশ। সেখান থেকে দেওয়ানা শেল্টার হোম নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে।

পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটে তারা ফেরত এসেছেন। ইমিগ্রেশন পুলিশ কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ফেরত আসা তরুণীদের আস্ট্রিক এন্ড কেয়ার নামের একটি এনজিওর হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশরাফ।


ডেইলিমেইল বিডি ডট কম//সাফায়েত

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।