পাবনায় অগ্নিকাণ্ড, তিন কোটি টাকার সম্পদ ছাই


পাবনা প্রতিনিধি: | Published: 2018-08-20 06:49:59 BdST | Updated: 2019-08-25 22:04:06 BdST

পাবনার মধ্যশহরে আব্দুল হামিদ সড়কের বহুতল বাণিজ্যিক ভবন ‘সাত্তার বিশ্বাস ভবনে’ ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। শহরের কেন্দ্রস্থলে জেবি মোড়ে অবস্থিত ছয়তলা ভবনটিতে অগ্নিকাণ্ডে প্রায় তিন কোটি টাকার সম্পদ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

সোমবার ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টার মধ্যে ভবনের নিচতলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে দুইতলা ও তিনতলার বিভিন্ন কক্ষে মুহুর্তেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ভবনটিতে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাংক, শো-রুম, রেস্তোরাঁ রয়েছে। ভবনটির নীচতলায় বিপনি বিতান, দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় চারটি বাণিজ্যিক ব্যাংক এবং অন্যান্য তলা আবাসিক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। অগ্নিকাণ্ডে ৬জন আহত হয়েছেন।

পাবনা ফায়ার সার্ভিস জানায়, ভোর সোয়া ৫টার দিকে ভবনটির নীচতলায় অবস্থিত অ্যাপেক্স'র শোরুমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পাবনা ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকার ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

পাবনা জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন জানান, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সাত্তার বিশ্বাস ভবনের নিচতলা থেকে আগুন লেগে দ্রুত উপরের দিকে ছড়িয়ে পড়ে। জেলা প্রশাসন ও পুলিশের তত্ত্বাবধানে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের প্রচেষ্টায় আটকে পড়া পাঁচজন ব্যক্তিকে নিরাপদে বের করে আনা গেছে। তবে ভবনটির অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা দুর্বল হওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণে সময় বেশি লেগেছে।

পাবনার পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়েই আমারা ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। জেলা পুলিশ ও সাধারণ মানুষের সহযোগিতায় প্রায় তিন ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। বেশ কয়েকটি ব্যাংক ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান থাকায় আমরা সর্বোচ্চ নিরপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি। আহতদের উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস এবং প্রশাসন ঘটনার তদন্তে নেমেছে। অগ্নিকাণ্ডে কারো গাফিলতির প্রমাণ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে পাবনা জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন ও পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। অগ্নিকাণ্ডে ভবনে থাকা ব্যাংক-বিমা, ওষুধের দোকানসহ অন্তত ১০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।