দাম বৃদ্ধির তালিকায় আজও ব্যাংকের দাপট


অর্থনীতি ডেস্ক: | Published: 2018-08-09 13:45:55 BdST | Updated: 2019-05-23 05:00:39 BdST

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) শেয়ার দাম বৃদ্ধির ক্ষেত্রে দাপট দেখিয়েছে ব্যাংক খাত। সিংহভাগ ব্যাংকের শেয়ার দাম বৃদ্ধির কারণে পতনের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে দুই বাজারের প্রধান মূল্য সূচক।

এ নিয়ে টানা তিন কার্যদিবস ব্যাংক খাতের সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়লো।

প্রধান মূল্য সূচক বাড়লেও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইতে অপর দুটি মূল্য সূচক কমেছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। তবে সিএসইতে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৭০টি। আর ৩৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার পরও ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৪০৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ সূচকটি বাড়াতে প্রধান ভূমিকা রেখেছে ব্যাংক খাত। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৪টি ব্যাংকেরই শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ৪টি ব্যাংক।

দাম বৃদ্ধিতে ব্যাংক খাতের এমন দাপটের পরও ডিএসইর অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮৯৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২৪৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

বাছাই করা ও শরিয়াহ মূল্য সূচকের পাশাপাশি বাজারটিতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭০৩ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৭২৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ২০ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বিবিএস ক্যাবলসের শেয়ার। কোম্পানিটির ৪১ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের ২৩ কোটি ৭৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৭ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে সায়হাম টেক্সটাইল।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- আমান কটন, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, মুন্নু সিরামিক, গ্রামীণফোন, লিগাসি ফুটওয়্যার, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপয়ার্ড এবং সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ৬৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪০ কোটি ৯ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৫০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১০৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১১৪টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।